ড্রোন হানায় জ্বলছে সৌদির তেলের খনি, সন্দেহের নজর ইরান।

সৌদির পূর্ব প্রান্তে আরামকো সোহ আরো দুটো তেলের খনি অগ্নিপ্রাপ্ত অবস্থায় দাউ দাউ করে জ্বলছে।

0
ড্রোন হানায় জ্বলছে সৌদির তেলের খনি, সন্দেহের নজর ইরান/thepolicytimes
469 Views

উড়ে পড়া ড্রোন হানায় সৌদিআরবের রাষ্ট্রায়ত্ত তেল জ্বলেপুড়ে ছারখার। উৎপাদন সংস্থা আরামকো -র দুটি তেলের  খনি।ড্রোন হানার এই খবরটি শনিবার সকালে সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকের দ্বারা জানানো হয়েছে সৌদির পূর্ব প্রান্তে আরামকো সোহ আরো দুটো তেলের খনি অগ্নিপ্রাপ্ত অবস্থায় দাউ দাউ করে জ্বলছে। খনি ছাড়াও আশেপাশের অনেকটা এলাকায় আগুন ছড়িয়ে পড়েছে।

খনি দুটির এলাকা ‘অবকাইক, ও  খুরায়েস’ এই ড্রোন হানার পক্ষে বিপক্ষে এখনও পর্যুন্ত কোনো সংগঠন কোনো মতপ্রকাশ করেনি কিন্তু তারপর রিয়াধের সন্দেহের নজরে ইরান। ব্যবসা বাণিজ্য  বিশেষ করে তেল বেচা অর্থে জঙ্গিকে সহায়তা করার অভিযোগে ইরানের ওপর জারি হওয়া মার্কিন নিষেধাক্কা ও রিয়াধের সাথে ওয়াসিংটনের সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ট হওয়ার বেপারেও এই ঘটনা ঘটতে পারে।রিয়াধের সংবাদমাধ্যম সৌদি এজেন্সি জানিয়েছে, অগ্নিপ্রাপ্ত খনি দুটি অবকাইক ও কুরায়েসে ভারতীয় সময় অনুসারে সকাল সাড়ে ৬ টা নাগাদ আগুন নেভানোর  কাজ শুরু করা হয়, আরামকো সংস্থার নিরাপত্তা কর্মীদের দ্বারা।

ক্ষণিক সময়ের সময়ের মধ্যে আগুনকে পুরো পুরি নিজের কবলে না নিয়ে আসলেও নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভম হয়েছে বলে জানিয়েছেন সৌদি সংবাদ সংস্থা।

কথা হতে এই ড্রোন উড়ে আসলো এবং এতবড়ো আতঙ্কের ইশারা, এ বিষয় পরিষ্কার কোনো তথ্য না পাওয়ায় সংবাদমাধ্যম রিয়াধ জানিয়েছেন প্রাথমিক তদন্ত শুরু করা হয়েছে। গত মাসেই সৌদিতে একটি প্রাকৃতিক গ্যাস উৎপাদন ক্ষেত্র এইরকম পরিস্থিতির স্বীকার হয়েছিল। প্রতিবেশী দেশ ইয়েমেনের সাথে এমিরাতি সীমান্তে সৌদি আরবের একটি গ্যাস উৎপাদন ক্ষেত্রে ড্রোন হামলা চালিয়েছিল ‘হুথী’ উপজাতি গোষ্ঠির বিদ্রোহীরা। কিন্তু এতে ক্ষয় ক্ষতি তেমন কিছু হয়নি। হুথিদের দখলপ্রাপ্ত জায়গাগুলি মুক্ত করার জন্যে রিয়াধ  বেশ কয়েকমাস ধরে বিমান হানাও চালাচ্ছে।

যার কারণেই ইয়েমেনের বিদ্রোহী হুথিদের টার্গেট হয়ে উঠেছে সৌদির তেল খনি ও গ্যাস ক্ষেত্রগুলি।

সৌদি সংবাদ এজেন্সির রিপোর্ট অনুযায়ী হুথি জঙ্গিরা নিয়তই ড্রোন ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে চলেছে সৌদির তেলের খনি গুলির পাশাপাশি প্রাকৃতিক গ্যাস ক্ষেত্রগুলিতেও। কিন্তু শনিবারের ড্রোন হানা ঘটনার পিছনে হুথিরাই কি না সে বিষয় এখনো নিশ্চিত নয় রিয়াধ সংবাদ এজেন্সি। হুথিদের পক্ষ থেকেও এমন হানাদারিতে জড়িত তেমন কোনো সমালোচনাও সামনে আসেনি, পার্শ্ববর্তী দেশ থেকেও কোনো অনুসূচনা পাওয়া যায়নি।

দাহরানে আরামকো -র সদর দফতর থেকে ৬০ কিলোমিটার দ: পশ্চিমে রয়েছে অবাকাইক তেল ক্ষেত্রটি। ২০০৬ এ ফেব্রূয়ারিতে অবকাইকে  ঢুকে  পড়ার চেষ্টা করেছিল আল- কায়দা জঙ্গিরা। এই আত্মঘাতী হামলায় অবকাইকের দুই নিরাপত্তা কর্মী প্রাণ  হারিয়েছিলেন, অপরদিকে আল-কায়দার দুই জঙ্গিও মারা যায় ঘটনা সূত্রে জানাগেছে। এই ঘটনার সাথে জড়িত থাকায় সৌদি আরবের একটি আদালত এক বেক্তিকে মৃত্যু দন্ড দিয়েছেন।ওপর দুই বেক্তি সৌদির নাগরিক হওয়ার ক্ষেত্রে ৩৩ বছর এবং ২৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছিলেন।

Summary
Article Name
ড্রোন হানায় জ্বলছে সৌদির তেলের খনি, সন্দেহের নজর ইরান।
Description
সৌদির পূর্ব প্রান্তে আরামকো সোহ আরো দুটো তেলের খনি অগ্নিপ্রাপ্ত অবস্থায় দাউ দাউ করে জ্বলছে।
Author
Publisher Name
The Policy Times
Publisher Logo