‘আত্মনির্ভর ভারত’ প্যাকেজ; মাঝারি শিল্পের জন্য ২০ হাজার কোটি টাকা সাহায্যের আশ্বাস দিলেন অর্থমন্ত্রী

দীর্ঘ লকডাউন আর করোনা সঙ্কটের করাল গ্রাস থেকে ভারতের অর্থনীতির ঘুরে দাঁড়ানোর জন্যই প্রধানমন্ত্রীর এই বিশাল প্যাকেজের ঘোষণা।

0

গত ১২-ঐ মে বুধবার রাতে ‘জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে’ ২০ লক্ষ কোটি টাকার ‘আত্মনির্ভর ভারত’ আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দীর্ঘ লকডাউন আর করোনা সঙ্কটের করাল গ্রাস থেকে ভারতের অর্থনীতির ঘুরে দাঁড়ানোর জন্যই প্রধানমন্ত্রীর এই বিশাল প্যাকেজের ঘোষণা। তিনি বলেন আর্থিক প্যাকেজে কি কি উল্লেখ থাকবে এবং কাদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে তা নিয়ে বুধবার অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন  বিস্তারিত বিবরণ দেবেন।

আপেক্ষিকভাবে কুড়ি লক্ষ কোটি টাকা বিশালায়তন প্যাকেজ  মনে হলেও আদতে সাধারণ মানুষের প্রাপ্তি কতখানি- সে প্রসঙ্গে সকলের প্রত্যাশা ছিল তুঙ্গে। বুধবার অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন শিল্পের ক্ষেত্রে কিছু সুবিধার কথা বলেন। মূলত তিনি ক্ষুদ্র-মাঝারি শিল্পকে ব্যাংক ঋণের ওপর নির্ভর করে থাকতে বলেন। এছাড়াও বেতনভোগী বেসরকারি কর্মী, রিয়েল এস্টেট, সরকারি কর্মীদের জন্য প্ল্যান ঘোষণা করেন। কিন্তু তিনি সরাসরি অর্থের জোগানের ব্যাপারে কিছুই উল্লেখ করেননি- যা নিঃসন্দেহে কিছুটা হতাশ  করেছে দেশবাসীকে। অর্থমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী-

  • সরকারি ঠিকাদারের সব চুক্তি ছ-মাসসম্প্রসারিত করা হয়েছে
  • ব্যাংক থেকে তিন লক্ষ কোটি টাকার গ্যারান্টিহীন লোন পাবে ৪৫ লক্ষ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প ইউনিট
  • আগামী তিন মাস পি এফ দুই শতাংশ কমবে
  •  টি ডি এসের হার  ২৫% কমানো হল
  • আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৩০ শে নভেম্বর করা হয়েছে
  •  রিয়েল এস্টেট, রেজিস্ট্রেশন, সি সি ৬ মাস অবধি বাড়ানো  হয়েছে
  • নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে আর্থিক লেনদেন টি ডি এস ও টি সি এসের করের হার ৩১ শে মার্চ পর্যন্ত ২৫ শতাংশ কমিয়ে দেওয়া হয়েছে
  • আগামী ৪৫ দিনের মধ্যে বকেয়া মিটিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিলো সরকার ও রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা
  •  সরকারি কেনাকাটায় এবার ২০০ কোটি টাকা পর্যন্ত ‘গ্লোবাল টেন্ডার’ ডাকা হবে না

 

  • সংকট যুক্ত ক্ষুদ্র, মাঝারি শিল্পের জন্য ২০ হাজার কোটি টাকা সাহায্যের আশ্বাস দিলেন অর্থমন্ত্রী

ঘোষণায় পরিযায়ী শ্রমিকদের জীবিকা সম্পর্কিত কোন প্ল্যানের  উল্লেখই নেই । ঘোষণার প্রথম দিনে রাজকোষ থেকে সাধারণ মানুষের হাতে অর্থ যোগানের যে প্রত্যাশা মানুষের মনে তৈরি হয়েছিল তা মূলত ভেঙে পড়ার আশঙ্কায়।

অসহায় শ্রমিক শ্রেণীর কর্ম, জীবিকা নিয়ে কোন প্রকার উল্লেখ না থাকায় তীব্র নিন্দায় সোচ্চার হয়েছে দেশবাসী, এমনকি অর্থনীতিবিদেরা এই একই প্রশ্ন ছুড়েছেন। গরিব মানুষের পাশে দাঁড়ানো সরকারের কর্তব্য। সাধারণের হাতে টাকা না এলে, সরকারি খরচ না বাড়ালে, বাজারে চাহিদা আসবে না। ঘুরে দাঁড়াতে পারবে না ভারতের অর্থনীতি।

সব মিলিয়ে প্রথম দিনের ঘোষণায় সাধারণ মানুষের প্রাপ্তির ভাড়ার শূন্য। দ্বিতীয় দফায় এই অনুল্লিখিত বিষয়গুলির ওপরে ঘোষণা করা হবে কি না তা নিয়ে দ্বন্দ্বে রয়েছেন সকলেই।

Summary
Article Name
‘আত্মনির্ভর ভারত’ প্যাকেজ; মাঝারি শিল্পের জন্য ২০ হাজার কোটি টাকা সাহায্যের আশ্বাস দিলেন অর্থমন্ত্রী
Description
দীর্ঘ লকডাউন আর করোনা সঙ্কটের করাল গ্রাস থেকে ভারতের অর্থনীতির ঘুরে দাঁড়ানোর জন্যই প্রধানমন্ত্রীর এই বিশাল প্যাকেজের ঘোষণা।
Publisher Name
THE POLICY TIMES
Publisher Logo