বাতিল করা হল উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষা, আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে ফল প্রকাশের চেষ্টা

ছাত্র-ছাত্রীদের স্বাস্থ্যের প্রতি লক্ষ্য রেখেই গত শুক্রবার রাজ্য সরকার থেকে উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নাওয়া হয়েছে। আগামী জুলাইয়ের ২, ৬ ও ৮ তারিখ উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষাগুলি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অন্য বোর্ড ও সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সেই পরীক্ষাগুলি বাতিল করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

0
বাতিল করা হল উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষা, আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে ফল প্রকাশের চেষ্টা.THE POLICY TIMES

ছাত্র-ছাত্রীদের স্বাস্থ্যের প্রতি লক্ষ্য রেখেই গত শুক্রবার রাজ্য সরকার থেকে উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নাওয়া হয়েছে।  আগামী জুলাইয়ের ২, ৬ ও ৮ তারিখ উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষাগুলি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অন্য বোর্ড ও সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সেই পরীক্ষাগুলি বাতিল করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তবে ওই পরীক্ষাগুলিতে পরীক্ষার্থীরা কী ভাবে নম্বর পাবেন সে বিষয়ে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বিষয়টি স্পষ্ট করেছে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।

সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিক সম্মেলন করে পরীক্ষা বাতিলের কথা ঘোষণা করেন। করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলায় সিবিএসই-র পথে হেঁটেই উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষাও বাতিল করা হল। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের সঙ্গে সঙ্গতি রেখেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানালেন শিক্ষামন্ত্রী। তবে কী ভাবে বাতিল হওয়া পরীক্ষার বিষয়গুলির নম্বর মূল্যায়ন করা হবে, তা নিয়ে উচ্চশিক্ষা পর্ষদের বিশেষজ্ঞ কমিটি নিয়ম তৈরি করছে বলে জানান তিনি।

এর পরই সংসদ বাকি পরীক্ষার মূল্যায়নের বিষয়টি স্পষ্ট করে জানিয়ে দেয়। বলা হয়, পরীক্ষার্থীদের পূর্বে দেওয়া লিখিত পরীক্ষাগুলির মধ্যে যে বিষয়ে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছেন, বাকি পরীক্ষাগুলিতেও ওই নম্বরই দেওয়া হবে। উদাহরণ হিসাবে বলা যেতে পারে, কোনো পরীক্ষার্থী হয়তো তাঁর দেওয়া পরীক্ষাগুলির মধ্যে কোনো এক বিষয়ে সর্বোচ্চ ৮০ নম্বর পেয়েছেন, তা হলে তাঁর বাকি থাকা পরীক্ষার বিষয়েও ওই ৮০ নম্বর দেওয়া হবে।


এ নিয়ে শনিবার থেকেই বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে। যদিও শুক্রবারই সাংবাদিক সম্মেলন করে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, যারা ফলাফল প্রকাশের পরে সন্তুষ্ট হতে পারবেন না বা যদি এই বিকল্প পদ্ধতি পছন্দ না হয়, সে ক্ষেত্রে তিনি পরীক্ষা দিতে পারবেন; কিন্তু সেই পরীক্ষা হবে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক হলে। এ ব্যাপারে অভিভাবকদের একাংশ বলছেন, ফলাফল প্রকাশের পর হয়তো অনলাইনে ভরতি প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে। ফলে ইচ্ছুকরা যদি পরীক্ষায় বসে, তা হলে পরে ভালো নম্বর পেয়ে কলেজে ভর্তির সুযোগ নাও পেতে পারে।

বাতিল হওয়া পরীক্ষার মধ্যে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের পরীক্ষা ছিল –

প্রথম দিন: ফিজিক্স, নিউট্রেশন, এডুকেশন ও অ্যাকাউন্টেন্সি।

দ্বিতীয় দিন: কেমিস্ট্রি, ইকোনমিক্স, জার্নালিজম অ্যান্ড মাস কমিউনিকেশন, সংস্কৃত, পার্শিয়ান, অ্যারাবিক এবং ফ্রেঞ্চ।

তৃতীয় দিন: স্ট্যাটিসটিকস, ভূগোল, কস্টিং অ্যান্ড ট্যাক্সেশন এবং হোম ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ফ্যামিলি রিসোর্স ম্যানেজমেন্টের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

অন্যদিকে, আগামী ৩১  জুলাইয়ের মধ্যে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকের ফল প্রকাশের চেষ্টা করা হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন। তবে ঠিক কবে উচ্চ মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ করা হবে সেটা পরে জানানো হবে।

Summary
Article Name
বাতিল করা হল উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষা, আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে ফল প্রকাশের চেষ্টা
Description
ছাত্র-ছাত্রীদের স্বাস্থ্যের প্রতি লক্ষ্য রেখেই গত শুক্রবার রাজ্য সরকার থেকে উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নাওয়া হয়েছে। আগামী জুলাইয়ের ২, ৬ ও ৮ তারিখ উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষাগুলি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অন্য বোর্ড ও সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সেই পরীক্ষাগুলি বাতিল করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।
Author
Publisher Name
THE POLICY TIMES
Publisher Logo

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.