জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকান্ডে প্রতিবাদীদের সম্মান জানাতে হোয়াইট হাউসের সামনের রাস্তার নাম রাখা হলো ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার প্লাজা

‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ (Black Lives Matter)- এই স্লোগানেই প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেছে আমেরিকা। এই পরিস্থিতিতে ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র মুরিয়েল বাউজার হোয়াইট হাউসের সামনের রাস্তার নামকরণ করলেন ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার প্লাজা’ (Black Lives Matter Plaza)।

0

কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের মর্মান্তিক হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে বিক্ষোভের আগুন ক্রমশ বেড়েই  চলছে আমেরিকায়। ঘটনার এক সপ্তাহ পরেও কমেনি আন্দোলনের উত্তাপ। জর্জ ফ্লয়েডের হত্যার প্রতিবাদে হোয়াইট হাউসের সামনেও বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন প্রতিবাদীরা। ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ (Black Lives Matter)- এই স্লোগানেই প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেছে আমেরিকা। এই পরিস্থিতিতে ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র মুরিয়েল বাউজার হোয়াইট হাউসের সামনের রাস্তার নামকরণ করলেন ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার প্লাজা’ (Black Lives Matter Plaza)।

হোয়াইট হাউসের সামনের রাস্তায় হলুদ রং দিয়ে এই স্লোগান লিখে দেওয়া হয়। নাম পরিবর্তনের পাশাপাশি সেই নাম যাতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট সহ সবাই চাক্ষুস করতে পারেন তাই কালো পিচের রাস্তার মধ্যে উজ্জ্বল হলুদ রং দিয়ে লিখে দেওয়া হয় এই নতুন নাম। প্রতিবাদীদের সম্মান জানাতেই এই নামকরণ করা হয়েছে বলে জানালেন ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র মুরিয়েল বাউজার। প্রতিবাদীদের ওপর যে ভাবে ফেডেরাল আইন ব্যবহার করে সেনা নামানো হয়েছে, তার তীব্র প্রতিবাদ করেছেন মেয়র। তিনি মিঃ ট্রাম্পকে ওয়াশিংটন থেকে ফেডারেল সেনাদের অপসারণেরও দাবি করেছেন। গত বৃহস্পতিবার ট্রাম্পকে তিনি লিখেছিলেন, “ওয়াশিংটন ডিসি থেকে সমস্ত অতিরিক্ত ফেডারেল আইন প্রয়োগকারী এবং সামরিক উপস্থিতি প্রত্যাহার করা হোক”।

তাঁর চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে যে, শহরের পুলিশ বাকি শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মোকাবিলায় সক্ষম। তিনি বলেন, “আমেরিকান নাগরিকদের অধিকার রক্ষার জন্য আইন প্রয়োগের ব্যবস্থা থাকা উচিত, তাঁদের সীমাবদ্ধ রাখবেন না।



মুরিয়েলের প্রধান সহকারী জন ফ্যালাসিচিও জানিয়েছেন, ‘হোয়াইট হাউসের সামনের রাস্তা আসলে কার অধিকার, এই নিয়ে গত সপ্তাহে সমস্যা তৈরি হয়। এই নামকরণের মাধ্যমে মেয়র পরিষ্কার করে দিলেন যে এই রাস্তা কাদের। তিনি শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদকে সম্মান জানাতেই এই নাম দিয়েছেন’।

এই তুমুল বিক্ষোভের মধ্যেও নিজের অবস্থানে অনড় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। বারে বারে এই আন্দোলকারীদের বিরুদ্ধে তিনি নানান কুরুচিকর মন্তব্যের মাধ্যমে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন । ‘গুলি করা’, ‘সেনা নামানো’-র হুঁশিয়ারি তিনি আগেই দিয়েছিলেন। কিন্তু এতেও বিক্ষোভ বিন্দুমাত্র প্রশমিত না হওয়ায় বিক্ষোভকারীদের এবার ‘জঙ্গি’ তকমা দিয়ে বসলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এবিষয়ে ট্রাম্পের এক প্রাক্তন অ্যাটর্নি জন ডাউডকে একটি চিঠি পাঠানো হয়। সেখানে ট্রাম্পের প্রাক্তন প্রতিরক্ষা সচিব জিম ম্যাটিস লেখেন, “এই বিক্ষোভ একেবারেই শান্তিপূর্ণ নয়। কিছু জঙ্গি, ছাত্রদের ব্যবহার করছে ধ্বংসলীলা চালানোর জন্য।” প্রতিবাদের নামে বিক্ষোভকারীরা ওয়াশিংটন এবং অন্য শহরে লুঠপাট করছে বলে অভিযোগ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর এই চিঠি সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পরেই বিক্ষোভের আগুনে ঘৃতাহুতি পড়ে। অনেকে প্রেসিডেন্টের দায়িত্বজ্ঞানহীনতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।

এরই মধ্যে নিউ ইয়র্কে ৭৫ বছরের একজন প্রতিবাদীর মাথা ফাটানোর ভিডিয়ো ভাইরাল হওয়ার পর সাসপেন্ড করা হয়েছে দুই পুলিশকর্মীকে। জর্জ ফ্লয়েডকে নিয়ে ট্রাম্পের প্রচার কমিটির পোস্ট করা একটি ভিডিয়ো এ দিন ডিলিট করে দিয়েছে টুইটার। তাদের বক্তব্য, কপিরাইট নিয়ে অভিযোগ এসেছে তাদের কাছে।

Summary
Article Name
জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকান্ডে প্রতিবাদীদের সম্মান জানাতে হোয়াইট হাউসের সামনের রাস্তার নাম রাখা হলো ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার প্লাজা’ Black Lives Matter Plaza
Description
‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ (Black Lives Matter)- এই স্লোগানেই প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেছে আমেরিকা। এই পরিস্থিতিতে ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র মুরিয়েল বাউজার হোয়াইট হাউসের সামনের রাস্তার নামকরণ করলেন ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার প্লাজা’ (Black Lives Matter Plaza)।
Author
Publisher Name
THE POLICY TIMES
Publisher Logo